রবিবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:৩৩
শিরোনাম
Thursday, March 16, 2017 11:56 am
A- A A+ Print

রোমাঞ্চকর জয়ে সিটিকে ছিটকে শেষ আটে মোনাকো

প্রথম লেগের হারে পিছিয়ে থাকা মোনাকো দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ালো। দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা আশা জাগিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি; কিন্তু ঘরের মাঠে অদম্য হয়ে ওঠা ফরাসি ক্লাবটির সঙ্গে পেরে ওঠেনি। ফলে শেষ ষোলোতেই শেষ হলো পেপ গুয়ার্দিওলার দলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ পথচলা।

ফিরতি পর্বের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে মোনাকো। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ৬-৬ হলেও অ্যাওয়ে গোলে এগিয়ে থাকার সুবাদে কোয়ার্টার-ফাইনালের টিকেট পেয়েছে তারা।

প্রথম লেগে ইংল্যান্ডের ক্লাব সিটি নিজেদের মাঠে ৫-৩ গোলে জিতেছিল।

বুধবার রাতে ম্যাচের প্রথম আধা ঘণ্টার মধ্যেই মোনাকো ২-০ গোলে এগিয়ে গেলে দুই লেগের লড়াইয়ের চিত্র আমূল পাল্টে যায়।

অষ্টম মিনিটে বাঁ-দিক থেকে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার বের্নার্দো সিলভার গোলমুখে বাড়ানো বল টোকা দিয়ে জালে পাঠান ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান বাপে। আর ২৯তম মিনিটে আট গজ দূর থেকে নীচু শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডার ফাবিনিয়ো।
সের্হিও আগুয়েরো ৬১তম মিনিটে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু ছয় গজ বক্সের ঠিক বাইরে থেকে তার শট ক্রসবারের একটু উপর দিয়ে চলে যায়। চার মিনিট পর গোলরক্ষককে একা পেয়েও ফের ব্যর্থ হন আর্জেন্টিনার এই স্ট্রাইকার।

৭১তম মিনিটে বাঁ-দিক দিয়ে রাহিম স্টার্লিংয়ের ক্রস গোলরক্ষক প্রতিহত করলেও পেয়ে যান লেরয় সানে। জোরালো শটে ব্যবধান কমান জার্মানির এই মিডফিল্ডার। নতুন করে আশা জাগে সিটির।

ছয় মিনিট পরেই সে আশা ফের ফিকে হয়ে যায়। বুলেট হেডে আবারও ব্যবধান বাড়ান ফরাসি মিডফিল্ডার বাকাইয়ুকু। দুই লেগ মিলিয়ে ফের স্কোরলাইন সমান হয়; কিন্তু পার্থক্য গড়ে দেয় অ্যাওয়ে গোল।
আরেক ম্যাচে বায়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে জিততে পারেনি আতলেতিকো মাদ্রিদ, ম্যাচটি গোলশুন্য ড্র হয়েছে। তবে প্রথম লেগে প্রতিপক্ষের মাঠে ৪-২ ব্যবধানে জেতায় কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে গতবারের রানার্সআপরা।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

রোমাঞ্চকর জয়ে সিটিকে ছিটকে শেষ আটে মোনাকো

Thursday, March 16, 2017 11:56 am

প্রথম লেগের হারে পিছিয়ে থাকা মোনাকো দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ালো। দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা আশা জাগিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি; কিন্তু ঘরের মাঠে অদম্য হয়ে ওঠা ফরাসি ক্লাবটির সঙ্গে পেরে ওঠেনি। ফলে শেষ ষোলোতেই শেষ হলো পেপ গুয়ার্দিওলার দলের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ পথচলা।

ফিরতি পর্বের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে মোনাকো। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ৬-৬ হলেও অ্যাওয়ে গোলে এগিয়ে থাকার সুবাদে কোয়ার্টার-ফাইনালের টিকেট পেয়েছে তারা।

প্রথম লেগে ইংল্যান্ডের ক্লাব সিটি নিজেদের মাঠে ৫-৩ গোলে জিতেছিল।

বুধবার রাতে ম্যাচের প্রথম আধা ঘণ্টার মধ্যেই মোনাকো ২-০ গোলে এগিয়ে গেলে দুই লেগের লড়াইয়ের চিত্র আমূল পাল্টে যায়।

অষ্টম মিনিটে বাঁ-দিক থেকে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার বের্নার্দো সিলভার গোলমুখে বাড়ানো বল টোকা দিয়ে জালে পাঠান ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান বাপে। আর ২৯তম মিনিটে আট গজ দূর থেকে নীচু শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলের ডিফেন্ডার ফাবিনিয়ো।
সের্হিও আগুয়েরো ৬১তম মিনিটে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু ছয় গজ বক্সের ঠিক বাইরে থেকে তার শট ক্রসবারের একটু উপর দিয়ে চলে যায়। চার মিনিট পর গোলরক্ষককে একা পেয়েও ফের ব্যর্থ হন আর্জেন্টিনার এই স্ট্রাইকার।

৭১তম মিনিটে বাঁ-দিক দিয়ে রাহিম স্টার্লিংয়ের ক্রস গোলরক্ষক প্রতিহত করলেও পেয়ে যান লেরয় সানে। জোরালো শটে ব্যবধান কমান জার্মানির এই মিডফিল্ডার। নতুন করে আশা জাগে সিটির।

ছয় মিনিট পরেই সে আশা ফের ফিকে হয়ে যায়। বুলেট হেডে আবারও ব্যবধান বাড়ান ফরাসি মিডফিল্ডার বাকাইয়ুকু। দুই লেগ মিলিয়ে ফের স্কোরলাইন সমান হয়; কিন্তু পার্থক্য গড়ে দেয় অ্যাওয়ে গোল।
আরেক ম্যাচে বায়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে জিততে পারেনি আতলেতিকো মাদ্রিদ, ম্যাচটি গোলশুন্য ড্র হয়েছে। তবে প্রথম লেগে প্রতিপক্ষের মাঠে ৪-২ ব্যবধানে জেতায় কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে গতবারের রানার্সআপরা।

Comments

comments

X