শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:২৫
শিরোনাম
Monday, May 2, 2016 8:31 am
A- A A+ Print

যেভাবে সুগন্ধি ব্যবহার করবেন

ঘামের বাজে গন্ধটা নাকে আসতেই চোখমুখ কুঁচকে গেল। ভদ্রতা করে মনে মনে বলছেন, ‘একটু পারফিউম দিয়ে এলে কী এমন ক্ষতি হতো!’
যাকে নিয়ে ভাবা, তিনি কিন্তু ঠিকই ঘর থেকে বের হওয়ার আগে সুগন্ধি মেখে বের হয়েছেন। প্রচণ্ড গরমে ঘামের কারণে সেই সুগন্ধ এখন অনেকটাই দুর্গন্ধে পরিণত হয়েছে। গরমের এই সময়টাতে পারফিউম ব্যবহারের প্রবণতা বেড়ে যায়। কিন্তু লাগানোর জায়গা ও কায়দা ভুল হওয়ায় সুগন্ধি বেশিক্ষণ থাকে না। ব্রিটিশ পারফিউম বিশেষজ্ঞ রুথ মাসটেনব্রোয়েক গবেষণা করে শরীরের নির্দিষ্ট কিছু জায়গার কথা বলেছেন। যেসব জায়গায় পারফিউম লাগালে সেটা সারা দিন সুরভিত করে রাখে। তবে এর বাইরেও টুকটাক কিছু ‘কারসাজি’ আছে। পদ্ধতিগুলো অনুসরণে অতিরিক্ত পারফিউম ব্যবহার করতে হবে না। বরং অল্প পরিমাণ পারফিউম দিয়েই সুরভিত থাকবেন অনেকক্ষণ।
কোথায় ব্যবহার করবেন
সুগন্ধি ব্যবহার করার কিছু জায়গা আছে। নির্দিষ্ট এই জায়গাগুলোতে সুগন্ধি ব্যবহার করলে অনেকক্ষণ ধরে প্রিয় গন্ধ ঘিরে রাখবে আপনাকে। শরীরের পালস পয়েন্টগুলো পারফিউম দেওয়ার জন্য আদর্শ জায়গা। কব্জি, কনুইয়ের ভেতরের অংশ, কলার বোন, হাঁটুর পেছনে, পায়ের গোড়ালি, নাভির কাছে, কানের পেছনে পারফিউম লাগালে সেই গন্ধটা স্থায়ী হয় বেশ কিছুটা সময়। মজার কথা হলো, চুলে পারফিউম লাগালে সেটা বেশ ভালো কাজে দেয়। সরাসরি স্প্রে না করে চিরুনিতে পারফিউম স্প্রে করুন। এবার চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন।

রাত ও দিনের সুগন্ধি
কিছু কিছু পারফিউম নির্দিষ্টভাবে ব্যবহার করা হয় রাত ও দিনের জন্য। দিনের বেলায় তুলনামূলক ভারী সুগন্ধিগুলো ব্যবহারের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। রাতের বেলায় হালকা। কারণ, দিনের বেলায় অনেকটা সময় ধরে সুগন্ধির প্রয়োজন।
গোসলের পরপরই ব্যবহার করুন
গোসলের সময় রোমকূপগুলো খুলে যায়। এ কারণে গোসলের পরপরই পারফিউম ব্যবহার করা হলে রোমকূপগুলো সুগন্ধ অনেকাংশেই টেনে নেয়। সুগন্ধি এ কারণে অনেকক্ষণ ধরে থেকে যায়।
ময়েশ্চারাইজার করে নিন
পারফিউম দেওয়ার আগে হাতে পায়ে ময়েশ্চারাইজার দিয়ে নিন। কারণটা হলো, ত্বক খসখসে থাকার বদলে যদি মসৃণ আর নরম থাকে, তাহলে পারফিউম নিজের মধ্যে টেনে নেয় অনেকক্ষণের জন্য।
কাপড়ের ওপরে নয়
কাপড়ের ওপরে নয়, বরং শরীরের পালস পয়েন্টগুলোতে পারফিউম ব্যবহার করুন। কাপড়ের ওপরে পারফিউম ব্যবহারে অনেক সময় দাগ বসে যাওয়ারও আশঙ্কা থাকে।
দূরত্ব বজায় রাখুন
পারফিউম দেওয়ার সময় শরীর থেকে ৫-৭ ইঞ্চি দূরত্ব বজায় রাখুন।
লেপন বা ঘষা নয়
পারফিউম দেওয়ার পরে এটাকে আপনা থেকেই শুকাতে দিন। অনেকে হাতের কব্জিতে পারফিউম দিয়ে কাপড় বা শরীরের অন্য কোনে অংশে ঘষেন। এটা করার প্রয়োজন নেই। আঙুল দিয়ে পারফিউমের ভেজা অংশ ঘষারও মানে হয় না। এতে গন্ধ অনেকটাই কমে যায়।
পরিমাণে কম ব্যবহার করুন
বেশি পরিমানে পারফিউম ব্যবহার ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। সঠিক জায়গায় অল্প পরিমাণে ব্যবহার করুন। দরকার হলে চার-পাঁচ ঘন্টা পরপরও কিছুটা পারফিউম দিয়ে নিতে পারেন।

সূত্র: উইকি হাউ ও ডেইলি মেইল

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

যেভাবে সুগন্ধি ব্যবহার করবেন

Monday, May 2, 2016 8:31 am

ঘামের বাজে গন্ধটা নাকে আসতেই চোখমুখ কুঁচকে গেল। ভদ্রতা করে মনে মনে বলছেন, ‘একটু পারফিউম দিয়ে এলে কী এমন ক্ষতি হতো!’
যাকে নিয়ে ভাবা, তিনি কিন্তু ঠিকই ঘর থেকে বের হওয়ার আগে সুগন্ধি মেখে বের হয়েছেন। প্রচণ্ড গরমে ঘামের কারণে সেই সুগন্ধ এখন অনেকটাই দুর্গন্ধে পরিণত হয়েছে। গরমের এই সময়টাতে পারফিউম ব্যবহারের প্রবণতা বেড়ে যায়। কিন্তু লাগানোর জায়গা ও কায়দা ভুল হওয়ায় সুগন্ধি বেশিক্ষণ থাকে না। ব্রিটিশ পারফিউম বিশেষজ্ঞ রুথ মাসটেনব্রোয়েক গবেষণা করে শরীরের নির্দিষ্ট কিছু জায়গার কথা বলেছেন। যেসব জায়গায় পারফিউম লাগালে সেটা সারা দিন সুরভিত করে রাখে। তবে এর বাইরেও টুকটাক কিছু ‘কারসাজি’ আছে। পদ্ধতিগুলো অনুসরণে অতিরিক্ত পারফিউম ব্যবহার করতে হবে না। বরং অল্প পরিমাণ পারফিউম দিয়েই সুরভিত থাকবেন অনেকক্ষণ।
কোথায় ব্যবহার করবেন
সুগন্ধি ব্যবহার করার কিছু জায়গা আছে। নির্দিষ্ট এই জায়গাগুলোতে সুগন্ধি ব্যবহার করলে অনেকক্ষণ ধরে প্রিয় গন্ধ ঘিরে রাখবে আপনাকে। শরীরের পালস পয়েন্টগুলো পারফিউম দেওয়ার জন্য আদর্শ জায়গা। কব্জি, কনুইয়ের ভেতরের অংশ, কলার বোন, হাঁটুর পেছনে, পায়ের গোড়ালি, নাভির কাছে, কানের পেছনে পারফিউম লাগালে সেই গন্ধটা স্থায়ী হয় বেশ কিছুটা সময়। মজার কথা হলো, চুলে পারফিউম লাগালে সেটা বেশ ভালো কাজে দেয়। সরাসরি স্প্রে না করে চিরুনিতে পারফিউম স্প্রে করুন। এবার চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন।

রাত ও দিনের সুগন্ধি
কিছু কিছু পারফিউম নির্দিষ্টভাবে ব্যবহার করা হয় রাত ও দিনের জন্য। দিনের বেলায় তুলনামূলক ভারী সুগন্ধিগুলো ব্যবহারের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। রাতের বেলায় হালকা। কারণ, দিনের বেলায় অনেকটা সময় ধরে সুগন্ধির প্রয়োজন।
গোসলের পরপরই ব্যবহার করুন
গোসলের সময় রোমকূপগুলো খুলে যায়। এ কারণে গোসলের পরপরই পারফিউম ব্যবহার করা হলে রোমকূপগুলো সুগন্ধ অনেকাংশেই টেনে নেয়। সুগন্ধি এ কারণে অনেকক্ষণ ধরে থেকে যায়।
ময়েশ্চারাইজার করে নিন
পারফিউম দেওয়ার আগে হাতে পায়ে ময়েশ্চারাইজার দিয়ে নিন। কারণটা হলো, ত্বক খসখসে থাকার বদলে যদি মসৃণ আর নরম থাকে, তাহলে পারফিউম নিজের মধ্যে টেনে নেয় অনেকক্ষণের জন্য।
কাপড়ের ওপরে নয়
কাপড়ের ওপরে নয়, বরং শরীরের পালস পয়েন্টগুলোতে পারফিউম ব্যবহার করুন। কাপড়ের ওপরে পারফিউম ব্যবহারে অনেক সময় দাগ বসে যাওয়ারও আশঙ্কা থাকে।
দূরত্ব বজায় রাখুন
পারফিউম দেওয়ার সময় শরীর থেকে ৫-৭ ইঞ্চি দূরত্ব বজায় রাখুন।
লেপন বা ঘষা নয়
পারফিউম দেওয়ার পরে এটাকে আপনা থেকেই শুকাতে দিন। অনেকে হাতের কব্জিতে পারফিউম দিয়ে কাপড় বা শরীরের অন্য কোনে অংশে ঘষেন। এটা করার প্রয়োজন নেই। আঙুল দিয়ে পারফিউমের ভেজা অংশ ঘষারও মানে হয় না। এতে গন্ধ অনেকটাই কমে যায়।
পরিমাণে কম ব্যবহার করুন
বেশি পরিমানে পারফিউম ব্যবহার ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। সঠিক জায়গায় অল্প পরিমাণে ব্যবহার করুন। দরকার হলে চার-পাঁচ ঘন্টা পরপরও কিছুটা পারফিউম দিয়ে নিতে পারেন।

সূত্র: উইকি হাউ ও ডেইলি মেইল

Comments

comments

X