শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৫০
শিরোনাম
Sunday, April 10, 2016 12:08 am | আপডেটঃ April 10, 2016 2:00 AM
A- A A+ Print

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল অব নিউজার্সি ( সাউথ) এর উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

আটলান্টিক সিটি থেকে সুব্রত চৌধুরি

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আটলান্টিক সিটিতে মহান স্বাধীনতা  দিবস উদযাপিত হয়েছে। গত ৫ই এপ্রিল , মঙ্গলবার, রাতে মিঃ ষ্টিক রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল  অব নিউজার্সি  ( সাউথ) মহান  স্বাধীনতা  দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে। জনাব কলিমুল্লাহ খানের পবিএ কোরান তেলাওয়াতের পর জাতীয় সংগীত ও দলীয় সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

সংগঠনের সভাপতি জনাব মাহবুবুর রহমান চুননু এর পৌরহিত্যে আলোচনা সভায় মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন এম রহমান বাবুল, মোসাদেক্কুল মাওলা , আজিজুল ইসলাম ফেরদৌস , জহিরুল ইসলাম বাবুল , কলিমুল্লাহ খান , গিয়াসউদদীন পাঠান , আবুল কে  মোস্তফা  , মোঃ হুমায়ুন কবির , সেলিম সুলতান আকতার।   সংগঠনের সাধারন সম্পাদক এম রহমান বাবুলের সঞ্চালণায় আলোচনা সভায়  আরো বক্তব্য রাখেন  সাখাওয়াত হোসেন, শহীদুল আনোয়ার , মোঃ ইকবাল হোসেন ,  সোহেল আহমেদ্‌ , মোঃ জি উদদীন আলী ।

আলোচনা সভায় বক্তারা  স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন এবং যেসব মা-বোন সম্ভ্রম হারিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। বক্তারা  স্বাধীনতার মহান ঘোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।সেইসাথে মুক্তিযুদ্ধের সময় আওয়ামী লীগ নেতাদের ভারতে পালিয়ে গিয়ে আরাম- আয়েশে দিনাতিপাত করার কথা উল্লেখ করেন।বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় নিজেদেরকেই একমাএ স্বাধীনতার সপক্ষের  দল হিসাবে দাবী করে,কিন্তু বাস্তবতা হলো শেখ মুজিবুর রহমান নিজেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা চেয়েছিলেন নাকি অখণ্ড পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন সেটাতো সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত বিভিন্ন বইয়ের মাধ্যমে জনগনের কাছে পরিষ্কার হয়ে গেছে। সুতরাং যেখানে শেখ মুজিব সাহেবের বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাওয়া না চাওয়া নিয়ে জনমনে প্রশ্ন সেখানে আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একমাএ দল হিসাবে দাবী করাটা হাস্যকর নয় কি? বক্তারা আরো বলেন, বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার দেশের অধিকাংশ জনগনের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয়, এটা হলো স্বৈরাচারী এরশাদের সাথে পাতানো নির্বাচনের সরকার। স্বৈরাচারী কায়দায় তারা এখন দেশ পরিচালনা করছে।

সভাপতির বক্তব্যে মাহবুবুর রহমান চুননু বলেন, বর্তমান সরকার একটি অগনতান্ত্রিক সরকার, সুতরাং তাদের কাছে গনতান্ত্রিক আচরন আশা করা বোকামি। দেশে মানুষের মৌলিক অধিকার, ভোটের অধিকার,ভিন্নমত প্রকাশের অধিকার এমনকি স্বাভাবিকভাবে বেঁচে থাকার অধিকারতো দূরের কথা, মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি পর্যন্ত নেই। দেশে চলছে শুধু অপহরন,গুম আর খুন, প্রতিনিয়ত বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। সেইসাথে চলছে সর্বত্র হরিলুট,চাঁদাবাজি আর দখলবাজি।এই সরকারের কাছে দেশ ও দেশের স্বাধীনতা নিরাপদ নয়।  ব্যাংকে জমা রাখা সাধারন মানুষের সঞ্চয় লুটে নিচ্ছে এই সরকারের তল্পিবাহক লুটেরার দল। উন্নয়নের নামে সরকারী দলের লোকজন হরিলুটে ব্যস্ত। সরকারের অদক্ষতার কারনে  হ্যাকিং এর মাধ্যমে রিজারভ এর টাকা লুুটে নিচ্ছে হ্যাকাররা।  তাই দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়ার ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও’ শ্লোগানে বিশ্বাসী হয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে এই বাকশালী সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করানো ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই।                                                                                                                                                                                                                    সরকারের শত বাধা উপেক্ষা করে দীর্ঘদিন পর বিএনপির জাতীয়  কাউনসিল সফল ভাবে সমাপ্ত হওয়ায় এই সভা থেকে সন্তোষ প্রকাশ করা হয় এবং দলীয় নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানানো হয়। তাছাড়া দীর্ঘদিন পর ির্মজা  ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে মহাসচিব নির্বাচিত করায় এবং রাজপথের লড়াকু সৈনিক রিজভী আহমদকে সিনিয়র  যুগ্ম মহাসচিব ও মিজানুর রহমান সিনহাকে কোষাধ্যক্ষ  নির্বাচিত করায় দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়া ও   সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে এই সভা থেকে অভিনন্দন জানানো হয়।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শিশু- কিশোরদের জন্য চিএাংকণ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয় ।

বিপুল সংখ্যক বিএনপি নেতা- কর্মী এই সভায় যোগ দেন।

নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল অব নিউজার্সি ( সাউথ) এর উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

Sunday, April 10, 2016 12:08 am | আপডেটঃ April 10, 2016 2:00 AM

আটলান্টিক সিটি থেকে সুব্রত চৌধুরি

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আটলান্টিক সিটিতে মহান স্বাধীনতা  দিবস উদযাপিত হয়েছে। গত ৫ই এপ্রিল , মঙ্গলবার, রাতে মিঃ ষ্টিক রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল  অব নিউজার্সি  ( সাউথ) মহান  স্বাধীনতা  দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে। জনাব কলিমুল্লাহ খানের পবিএ কোরান তেলাওয়াতের পর জাতীয় সংগীত ও দলীয় সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

সংগঠনের সভাপতি জনাব মাহবুবুর রহমান চুননু এর পৌরহিত্যে আলোচনা সভায় মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন এম রহমান বাবুল, মোসাদেক্কুল মাওলা , আজিজুল ইসলাম ফেরদৌস , জহিরুল ইসলাম বাবুল , কলিমুল্লাহ খান , গিয়াসউদদীন পাঠান , আবুল কে  মোস্তফা  , মোঃ হুমায়ুন কবির , সেলিম সুলতান আকতার।   সংগঠনের সাধারন সম্পাদক এম রহমান বাবুলের সঞ্চালণায় আলোচনা সভায়  আরো বক্তব্য রাখেন  সাখাওয়াত হোসেন, শহীদুল আনোয়ার , মোঃ ইকবাল হোসেন ,  সোহেল আহমেদ্‌ , মোঃ জি উদদীন আলী ।

আলোচনা সভায় বক্তারা  স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন এবং যেসব মা-বোন সম্ভ্রম হারিয়েছেন তাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান। বক্তারা  স্বাধীনতার মহান ঘোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।সেইসাথে মুক্তিযুদ্ধের সময় আওয়ামী লীগ নেতাদের ভারতে পালিয়ে গিয়ে আরাম- আয়েশে দিনাতিপাত করার কথা উল্লেখ করেন।বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় নিজেদেরকেই একমাএ স্বাধীনতার সপক্ষের  দল হিসাবে দাবী করে,কিন্তু বাস্তবতা হলো শেখ মুজিবুর রহমান নিজেই বাংলাদেশের স্বাধীনতা চেয়েছিলেন নাকি অখণ্ড পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন সেটাতো সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত বিভিন্ন বইয়ের মাধ্যমে জনগনের কাছে পরিষ্কার হয়ে গেছে। সুতরাং যেখানে শেখ মুজিব সাহেবের বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাওয়া না চাওয়া নিয়ে জনমনে প্রশ্ন সেখানে আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একমাএ দল হিসাবে দাবী করাটা হাস্যকর নয় কি? বক্তারা আরো বলেন, বর্তমান শেখ হাসিনার সরকার দেশের অধিকাংশ জনগনের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয়, এটা হলো স্বৈরাচারী এরশাদের সাথে পাতানো নির্বাচনের সরকার। স্বৈরাচারী কায়দায় তারা এখন দেশ পরিচালনা করছে।

সভাপতির বক্তব্যে মাহবুবুর রহমান চুননু বলেন, বর্তমান সরকার একটি অগনতান্ত্রিক সরকার, সুতরাং তাদের কাছে গনতান্ত্রিক আচরন আশা করা বোকামি। দেশে মানুষের মৌলিক অধিকার, ভোটের অধিকার,ভিন্নমত প্রকাশের অধিকার এমনকি স্বাভাবিকভাবে বেঁচে থাকার অধিকারতো দূরের কথা, মানুষের স্বাভাবিক মৃত্যুর গ্যারান্টি পর্যন্ত নেই। দেশে চলছে শুধু অপহরন,গুম আর খুন, প্রতিনিয়ত বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। সেইসাথে চলছে সর্বত্র হরিলুট,চাঁদাবাজি আর দখলবাজি।এই সরকারের কাছে দেশ ও দেশের স্বাধীনতা নিরাপদ নয়।  ব্যাংকে জমা রাখা সাধারন মানুষের সঞ্চয় লুটে নিচ্ছে এই সরকারের তল্পিবাহক লুটেরার দল। উন্নয়নের নামে সরকারী দলের লোকজন হরিলুটে ব্যস্ত। সরকারের অদক্ষতার কারনে  হ্যাকিং এর মাধ্যমে রিজারভ এর টাকা লুুটে নিচ্ছে হ্যাকাররা।  তাই দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়ার ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও’ শ্লোগানে বিশ্বাসী হয়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে এই বাকশালী সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করানো ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই।                                                                                                                                                                                                                    সরকারের শত বাধা উপেক্ষা করে দীর্ঘদিন পর বিএনপির জাতীয়  কাউনসিল সফল ভাবে সমাপ্ত হওয়ায় এই সভা থেকে সন্তোষ প্রকাশ করা হয় এবং দলীয় নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানানো হয়। তাছাড়া দীর্ঘদিন পর ির্মজা  ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে মহাসচিব নির্বাচিত করায় এবং রাজপথের লড়াকু সৈনিক রিজভী আহমদকে সিনিয়র  যুগ্ম মহাসচিব ও মিজানুর রহমান সিনহাকে কোষাধ্যক্ষ  নির্বাচিত করায় দেশনেএী বেগম খালেদা জিয়া ও   সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে এই সভা থেকে অভিনন্দন জানানো হয়।

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শিশু- কিশোরদের জন্য চিএাংকণ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয় ।

বিপুল সংখ্যক বিএনপি নেতা- কর্মী এই সভায় যোগ দেন।

নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

Comments

comments

X