বৃহস্পতিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, রাত ২:৪৬
শিরোনাম
Saturday, March 4, 2017 11:38 pm
A- A A+ Print

নাফাখুমের বন্য সৌন্দর্য

প্রায় ৩০ ফুট ওপর থেকে আছড়ে পড়া পানির প্রচণ্ড আঘাতে ঝরনার চারপাশে অনেকটা স্থানজুড়ে সৃষ্টি হয়েছে ঘন কুয়াশা। সূর্যের আলো এই জলপ্রবাহের খেলায় সৃষ্টি করেছে রংধনু। চারদিকে বড় বড় পাহাড়। নদীতে ছড়ানো অজস্র পাথর। পাথরগুলো যেন এক-একটি ভাস্কর্য। এমন দৃশ্য উপভোগ করতে হলে যেতে হবে বান্দরবানের থানচি উপজেলার রেমাক্রির নাফাখুম জলপ্রপাতে।

নাফাখুম ঝরনা দেখতে হলে বান্দরবান থেকে প্রথমে থানচি আসতে হবে। এরপর সেখান থেকে সাঙ্গু নদীপথে যেতে হবে রেমাক্রি। পথে পর্যটকদের তিন্দু ও বড় পাথর নামের দুটি স্থান পাড়ি দিতে হয়। রেমাক্রি থেকে নাফাখুমের পথটা দুর্গম। তবে পথ যত দুর্গম হবে, ততই বাড়বে প্রকৃতির ঐশ্বর্য। নদী পাড়ি দিতে দিতে চোখে পড়বে অসংখ্য জলপ্রপাত ও পাথর। পাহাড়ের মাঝে ঘন জঙ্গলের ফাঁক দিয়ে বয়ে চলা জলস্রোত। হাঁটতে হাঁটতে একসময় ঝরনার জলপতনের শব্দ এসে কানে লাগবে। কাছে গেলে পানির গর্জনে কানে তালা লেগে যাবে। হঠাৎই চোখের সামনে দেখতে পাবেন বিশাল পাথর ভেঙে গড়িয়ে পড়া উচ্ছল জলরাশি।

কীভাবে যাবেন: বান্দরবান থেকে বাস বা জিপে থানচি যাওয়া যায়। থানচি থেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকা করে রেমাক্রি বাজার, সেখান থেকে নৌকা করে কিংবা হেঁটে যেতে হবে নাফাখুম। থানচি থেকে অবশ্যই গাইড নিতে হবে।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

নাফাখুমের বন্য সৌন্দর্য

Saturday, March 4, 2017 11:38 pm

প্রায় ৩০ ফুট ওপর থেকে আছড়ে পড়া পানির প্রচণ্ড আঘাতে ঝরনার চারপাশে অনেকটা স্থানজুড়ে সৃষ্টি হয়েছে ঘন কুয়াশা। সূর্যের আলো এই জলপ্রবাহের খেলায় সৃষ্টি করেছে রংধনু। চারদিকে বড় বড় পাহাড়। নদীতে ছড়ানো অজস্র পাথর। পাথরগুলো যেন এক-একটি ভাস্কর্য। এমন দৃশ্য উপভোগ করতে হলে যেতে হবে বান্দরবানের থানচি উপজেলার রেমাক্রির নাফাখুম জলপ্রপাতে।

নাফাখুম ঝরনা দেখতে হলে বান্দরবান থেকে প্রথমে থানচি আসতে হবে। এরপর সেখান থেকে সাঙ্গু নদীপথে যেতে হবে রেমাক্রি। পথে পর্যটকদের তিন্দু ও বড় পাথর নামের দুটি স্থান পাড়ি দিতে হয়। রেমাক্রি থেকে নাফাখুমের পথটা দুর্গম। তবে পথ যত দুর্গম হবে, ততই বাড়বে প্রকৃতির ঐশ্বর্য। নদী পাড়ি দিতে দিতে চোখে পড়বে অসংখ্য জলপ্রপাত ও পাথর। পাহাড়ের মাঝে ঘন জঙ্গলের ফাঁক দিয়ে বয়ে চলা জলস্রোত। হাঁটতে হাঁটতে একসময় ঝরনার জলপতনের শব্দ এসে কানে লাগবে। কাছে গেলে পানির গর্জনে কানে তালা লেগে যাবে। হঠাৎই চোখের সামনে দেখতে পাবেন বিশাল পাথর ভেঙে গড়িয়ে পড়া উচ্ছল জলরাশি।

কীভাবে যাবেন: বান্দরবান থেকে বাস বা জিপে থানচি যাওয়া যায়। থানচি থেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকা করে রেমাক্রি বাজার, সেখান থেকে নৌকা করে কিংবা হেঁটে যেতে হবে নাফাখুম। থানচি থেকে অবশ্যই গাইড নিতে হবে।

Comments

comments

X