সোমবার, ২১শে মে, ২০১৮ ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:১০
শিরোনাম
Monday, June 26, 2017 3:36 am
A- A A+ Print

চট্টগ্রামের উন্নয়নে পৌনে ৫ কোটি ডলার দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক

চট্টগ্রাম নগরীর পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন ও নর্দমা ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্পে আরও চার কোটি ৭৫ লাখ ডলার দিতে যাচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক।

ঋণের এই বাড়তি অর্থ ইতোমধ্যে ২১ কোটি ৮৫ লাখ ডলার ব্যয়ে চলমান চট্টগ্রামের পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নতি ও স্যানিটেশন প্রকল্পে খরচ হবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, এই অর্থ চট্টগ্রাম ওয়াসাকে মধুনাঘাট পানি শোধনাগার প্লান্ট ও পতেঙ্গা বোস্টার পাম্পিং স্টেশন নির্মাণের পাশাপাশি কালুরঘাট থেকে পতেঙ্গা স্টেশন পর্যন্ত সরবরাহ লাইনের উন্নতিতে সাহায্য করবে।
নতুন করে অর্থায়নের পাশাপাশি প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ ২০১৮ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিশ্বব্যাংকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা-আইডিএ থেকে দেওয়া এই ঋণের জন্য বাংলাদেশকে কোনো সুদ দিতে হবে না। তবে শুন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জে ছয় বছরের রেয়াতকালসহ ৩৮ বছরে এই ঋণ শোধ করতে হবে।

বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান বলেন, “চট্টগ্রাম মহানগরীর মাত্র অর্ধেক মানুষ সুপেয় পানি পেয়ে থাকে। অপর্যাপ্ত স্যুয়ারেজ ও ড্রেইনেজের সমস্যায় ভোগান্তিও পোহাতে হয়, যার সঙ্গে যোগ হয় জলাবদ্ধতার সমস্যা।

“এই অর্থায়ন শহরের প্রান্তিক বস্তিবাসীসহ সবার দুর্ভোগ লাগবে সহায়ক হবে।”

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

চট্টগ্রামের উন্নয়নে পৌনে ৫ কোটি ডলার দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক

Monday, June 26, 2017 3:36 am

চট্টগ্রাম নগরীর পানি সরবরাহ, স্যানিটেশন ও নর্দমা ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্পে আরও চার কোটি ৭৫ লাখ ডলার দিতে যাচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক।

ঋণের এই বাড়তি অর্থ ইতোমধ্যে ২১ কোটি ৮৫ লাখ ডলার ব্যয়ে চলমান চট্টগ্রামের পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নতি ও স্যানিটেশন প্রকল্পে খরচ হবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, এই অর্থ চট্টগ্রাম ওয়াসাকে মধুনাঘাট পানি শোধনাগার প্লান্ট ও পতেঙ্গা বোস্টার পাম্পিং স্টেশন নির্মাণের পাশাপাশি কালুরঘাট থেকে পতেঙ্গা স্টেশন পর্যন্ত সরবরাহ লাইনের উন্নতিতে সাহায্য করবে।
নতুন করে অর্থায়নের পাশাপাশি প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ ২০১৮ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের মার্চ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিশ্বব্যাংকের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা-আইডিএ থেকে দেওয়া এই ঋণের জন্য বাংলাদেশকে কোনো সুদ দিতে হবে না। তবে শুন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জে ছয় বছরের রেয়াতকালসহ ৩৮ বছরে এই ঋণ শোধ করতে হবে।

বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান বলেন, “চট্টগ্রাম মহানগরীর মাত্র অর্ধেক মানুষ সুপেয় পানি পেয়ে থাকে। অপর্যাপ্ত স্যুয়ারেজ ও ড্রেইনেজের সমস্যায় ভোগান্তিও পোহাতে হয়, যার সঙ্গে যোগ হয় জলাবদ্ধতার সমস্যা।

“এই অর্থায়ন শহরের প্রান্তিক বস্তিবাসীসহ সবার দুর্ভোগ লাগবে সহায়ক হবে।”

Comments

comments

X