শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৩৩
শিরোনাম
Monday, June 26, 2017 3:40 am
A- A A+ Print

কনফেডারেশন্স কাপে সেমিতে জার্মানি

সেই ২০০৫ সালে সর্বশেষ কনফেডারেশন্স কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছিল জার্মানি। বিশ্বকাপের ‘মহড়া’ প্রতিযোগিতার মাঝের দুই আসরে খেলার সুযোগ না পাওয়া দলটি এক যুগ পর ফিরেই শেষ চারে উঠে গেছে।রোববার গ্রুপ পর্বের শেষ রাউন্ডে ক্যামেরুনকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সেরা চারে উঠল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।২০০৫ সালে নিজেদের মাঠে হওয়া কনফেডারেশন্স কাপে তৃতীয় হয়েছিল জার্মানি। সেবার তাদের মাটি থেকে শিরোপা নিয়ে ফিরেছিল ব্রাজিল।

অস্ট্রেলিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে এবারের আসর শুরু করা জার্মানি নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিলির সঙ্গে ১-১ ড্র করে। দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেরা চারে উঠল ইওয়াখিম লুভের দল। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তারা মুখোমুখি হবে ‘এ’ গ্রুপের রানার্সআপ মেক্সিকোর সঙ্গে।

অপর সেমি-ফাইনালে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর পর্তুগালের মুখোমুখি হবে চিলি। গ্রুপের শেষ ম্যাচে এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ১-১ ড্রয়ের পর ৫ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের রানার্সআপ হয়েছে কোপা আমেরিকার সেরারা।

চিলির কাছে ২-০ গোলের হার দিয়ে রাশিয়ার এই প্রতিযোগিতায় যাত্রা শুরু করা ক্যামেরুন গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ১-১ ড্র করে। ওই ১ পয়েন্ট নিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করল আফ্রিকার সেরারা। অস্ট্রেলিয়া বিদায় নিল তিন ম্যাচে দুই ড্রয়ে পাওয়া ২ পয়েন্ট নিয়ে।

সোচিতে ম্যাচের শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখে আক্রমণ করলেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না জার্মানি। ২৪তম মিনিটে মার্ভিন প্লাটেনহার্টজের শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। এরপর এমরে কানও হেড লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় গোল পায়নি ক্যামেরুন। ৪৫তম মিনিটে ডান দিক থেকে মৌকানজোর বাড়ানো ক্রসে জাম্বো অ্যানগুইসা কিছুটা লাফিয়ে উঠে শট নিয়েছিলেন। মার্ক আন্ড্রে টের স্টেগেন কর্নারের বিনিময়ে তা ফেরান।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেয়ে যায় জার্মানি। ৪৮তম মিনিটে হুলিয়ান ড্রাক্সলারের ব্যাক হিল করে বাড়ানো বল ডি বক্সের একটু ওপর থেকে নেওয়া মাপা শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন কেরেম ডেমিরবে।

৬৪তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় ক্যামেরুন। বল দখলের লড়াইয়ে জার্মানির এমরে কানকে ফাউল করেন মাবৌকা ম্যাসৌসি কিন্তু রেফারি লালকার্ড দেন সেবাস্তিয়েন সিয়ানিকে। এ নিয়ে তৈরি হয় উত্তেজনা। পরে তৃতীয় রেফারির সহযোগিতা নিয়ে ভিডিও রিভিউ করে ম্যাসৌসিকে লালকার্ড দেন রেফারি।
দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় জার্মানি। ডান দিক থেকে জশুয়া কিমিচের বাড়ানো ক্রসে অনেকটা শুয়ে পড়ে নেওয়া হেডে লক্ষ্যভেদ করেন টিমো ভেরনার। জাতীয় দলের হয়ে ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড গোলের খাতাও খুললেন।

৭৮তম মিনিটের গোলে ম্যাচ জমিয়ে তোলে ক্যামেরুন। ডান দিন থেকে মৌমি এনগামালেউয়ের বাড়ানো ক্রসে পেট আবুবাকার আলতো করে মাথা ছোঁয়ালে বিভ্রান্ত হন একটু দূরে থাকা টের স্টেগেন। বল তার গ্লাভস গলে মাথার ওপর দিয়ে ঠিকানা খুঁজে পায়।

৮১তম মিনিটে বেঞ্জামিন হেনরিকের বাড়ানো বল ভেরনার ঠিকানায় পৌঁছে দিলে ক্যামেরুনের ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় অনেকটাই। লাইপজিগের এই ফরোয়ার্ড পরে হ্যাটট্রিকের সুযোগ নষ্ট করলেও পুরো ৩ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে জার্মানি।

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

কনফেডারেশন্স কাপে সেমিতে জার্মানি

Monday, June 26, 2017 3:40 am

সেই ২০০৫ সালে সর্বশেষ কনফেডারেশন্স কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছিল জার্মানি। বিশ্বকাপের ‘মহড়া’ প্রতিযোগিতার মাঝের দুই আসরে খেলার সুযোগ না পাওয়া দলটি এক যুগ পর ফিরেই শেষ চারে উঠে গেছে।রোববার গ্রুপ পর্বের শেষ রাউন্ডে ক্যামেরুনকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সেরা চারে উঠল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।২০০৫ সালে নিজেদের মাঠে হওয়া কনফেডারেশন্স কাপে তৃতীয় হয়েছিল জার্মানি। সেবার তাদের মাটি থেকে শিরোপা নিয়ে ফিরেছিল ব্রাজিল।

অস্ট্রেলিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে এবারের আসর শুরু করা জার্মানি নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে চিলির সঙ্গে ১-১ ড্র করে। দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেরা চারে উঠল ইওয়াখিম লুভের দল। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তারা মুখোমুখি হবে ‘এ’ গ্রুপের রানার্সআপ মেক্সিকোর সঙ্গে।

অপর সেমি-ফাইনালে ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর পর্তুগালের মুখোমুখি হবে চিলি। গ্রুপের শেষ ম্যাচে এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ১-১ ড্রয়ের পর ৫ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের রানার্সআপ হয়েছে কোপা আমেরিকার সেরারা।

চিলির কাছে ২-০ গোলের হার দিয়ে রাশিয়ার এই প্রতিযোগিতায় যাত্রা শুরু করা ক্যামেরুন গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ১-১ ড্র করে। ওই ১ পয়েন্ট নিয়ে টুর্নামেন্ট শেষ করল আফ্রিকার সেরারা। অস্ট্রেলিয়া বিদায় নিল তিন ম্যাচে দুই ড্রয়ে পাওয়া ২ পয়েন্ট নিয়ে।

সোচিতে ম্যাচের শুরু থেকে বলের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখে আক্রমণ করলেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না জার্মানি। ২৪তম মিনিটে মার্ভিন প্লাটেনহার্টজের শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। এরপর এমরে কানও হেড লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।

প্রথমার্ধের শেষ দিকে গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় গোল পায়নি ক্যামেরুন। ৪৫তম মিনিটে ডান দিক থেকে মৌকানজোর বাড়ানো ক্রসে জাম্বো অ্যানগুইসা কিছুটা লাফিয়ে উঠে শট নিয়েছিলেন। মার্ক আন্ড্রে টের স্টেগেন কর্নারের বিনিময়ে তা ফেরান।

দ্বিতীয়ার্ধে শুরুতে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেয়ে যায় জার্মানি। ৪৮তম মিনিটে হুলিয়ান ড্রাক্সলারের ব্যাক হিল করে বাড়ানো বল ডি বক্সের একটু ওপর থেকে নেওয়া মাপা শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন কেরেম ডেমিরবে।

৬৪তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় ক্যামেরুন। বল দখলের লড়াইয়ে জার্মানির এমরে কানকে ফাউল করেন মাবৌকা ম্যাসৌসি কিন্তু রেফারি লালকার্ড দেন সেবাস্তিয়েন সিয়ানিকে। এ নিয়ে তৈরি হয় উত্তেজনা। পরে তৃতীয় রেফারির সহযোগিতা নিয়ে ভিডিও রিভিউ করে ম্যাসৌসিকে লালকার্ড দেন রেফারি।
দুই মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় জার্মানি। ডান দিক থেকে জশুয়া কিমিচের বাড়ানো ক্রসে অনেকটা শুয়ে পড়ে নেওয়া হেডে লক্ষ্যভেদ করেন টিমো ভেরনার। জাতীয় দলের হয়ে ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড গোলের খাতাও খুললেন।

৭৮তম মিনিটের গোলে ম্যাচ জমিয়ে তোলে ক্যামেরুন। ডান দিন থেকে মৌমি এনগামালেউয়ের বাড়ানো ক্রসে পেট আবুবাকার আলতো করে মাথা ছোঁয়ালে বিভ্রান্ত হন একটু দূরে থাকা টের স্টেগেন। বল তার গ্লাভস গলে মাথার ওপর দিয়ে ঠিকানা খুঁজে পায়।

৮১তম মিনিটে বেঞ্জামিন হেনরিকের বাড়ানো বল ভেরনার ঠিকানায় পৌঁছে দিলে ক্যামেরুনের ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায় অনেকটাই। লাইপজিগের এই ফরোয়ার্ড পরে হ্যাটট্রিকের সুযোগ নষ্ট করলেও পুরো ৩ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে জার্মানি।

Comments

comments

X