শনিবার, ১৭ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:৩১
শিরোনাম
Friday, February 12, 2016 6:08 am | আপডেটঃ February 12, 2016 7:53 AM
A- A A+ Print

একুশ উদযাপনে প্যাটারসনে চলছে ব্যাপক আয়োজন

নতুন সকাল রিপোর্ট : ভাষা একটি জাতির অস্তিত্ব! তার শেকড় সন্ধানের স্বরূপ!! সেই ভাষার জন্য যারা জীবন দিয়েছেন, তাদেরকে স্মরণ করতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির প্যাটারসনের কেনেডি হাইস্কুল অডিটরিয়াম এবং সংলগ্ন স্থায়ী শহীদ মিনার ঘিরে চলছে ব্যাপক আয়োজন।

২১শে উদযাপন কমিটির এই আয়োজনে থাকছে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সেখানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ। দলীয় গীতিকাব্যের ভিন্নধর্মী পরিবেশনার সঙ্গে নৃত্যগীতিতে অংশ নেবে প্রবাসী শিশুরাও। তারই প্রস্তুতি চলছে এখন জোরেশোরে। অনুষ্ঠানের ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টে রয়েছে ওয়ার্ল্ড গ্ল্যাম।

ওয়ার্ল্ড গ্ল্যামের সভাপতি জুবের আহমেদ মতিন নতুন সকালকে জানান, ‘আমাদের এই আয়োজনে নিউজার্সির প্যাটারসনে বসবাসরত বাঙালীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। তারা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন সেই দিনটির জন্য, যেদিন বাংলার সূর্য্য সন্তানেরা ভাষার জন্য বুকের রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন অকাতরে।আমরা সেই বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং তাদেরকে স্মরণ করতে ব্যাপক আয়োজন করেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের এই আয়োজনে প্রবাসী শিশুদের মধ্যে যে আগ্রহ ও উদ্দীপনা লক্ষ্য করেছি তাতে আমি সত্যিই আবেগ আপ্লুত। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি সফল করার লক্ষ্যে তারা নিয়ম করে সপ্তাহে অন্তত তিনদিন প্রাকটিস করছে। স্থানীয় পর্যায়ে যারা শিল্পী, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে জড়িত তারাও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে প্রতিনিয়ত রিহার্সেলে অংশ নিচ্ছেন। আমি আশাবাদী আগামী ২০শে ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় সফল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পর রাত ১২টা ১মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র স্থায়ী শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদনের মাধ্যমে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করব আমরা।’যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র সয়ী শহীদ মিনার প্রসঙ্গে মতিন আরো বলেন,‘আমরা যখন এই শহীদ মিনারের পাদদেশে দাঁড়ায়aaaa

তখন আমাদের বুকটা গর্বে ভরে ওঠে। কারণ, যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অর্থায়ন এবং সার্পোটে শহীদ মিনারটি গড়ে তুলতে আমরা প্রবাসীরা অনেক কষ্ট করেছি। অনেক শ্রম ও সময় দিয়েছি। সেটি অনেক বড় ইতিহাস। এজন্য নিউজার্সি তথা প্যাটারসনে বসবাসরত প্রবাসী বাঙালীরা অনেক সহযোগিতা করেছেন। তাদের নাম বলে শেষ করা যাবে না। তবে এক্ষেত্রে ওয়ার্ল্ড গ্ল্যামের নাম না উল্লেখ করলেই নয়। কারণ এই সংগঠনের সদস্যদের আন্তরিক প্রচেষ্টার কারণেই আমরা এখানে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনারটি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি।’মতিন আরো জানান, ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে এনজে বাংলা টিভি এবং আরটিভি। এর ব্রডকাস্ট পার্টনার হিসাবে রয়েছে রেডিয়েন্টআইপি টিভি এবং প্রিন্ট মিডিয়া পার্টনার সাপ্তাহিক নতুন সকাল।

IMG_5534

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

একুশ উদযাপনে প্যাটারসনে চলছে ব্যাপক আয়োজন

Friday, February 12, 2016 6:08 am | আপডেটঃ February 12, 2016 7:53 AM

নতুন সকাল রিপোর্ট : ভাষা একটি জাতির অস্তিত্ব! তার শেকড় সন্ধানের স্বরূপ!! সেই ভাষার জন্য যারা জীবন দিয়েছেন, তাদেরকে স্মরণ করতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির প্যাটারসনের কেনেডি হাইস্কুল অডিটরিয়াম এবং সংলগ্ন স্থায়ী শহীদ মিনার ঘিরে চলছে ব্যাপক আয়োজন।

২১শে উদযাপন কমিটির এই আয়োজনে থাকছে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সেখানে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ। দলীয় গীতিকাব্যের ভিন্নধর্মী পরিবেশনার সঙ্গে নৃত্যগীতিতে অংশ নেবে প্রবাসী শিশুরাও। তারই প্রস্তুতি চলছে এখন জোরেশোরে। অনুষ্ঠানের ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টে রয়েছে ওয়ার্ল্ড গ্ল্যাম।

ওয়ার্ল্ড গ্ল্যামের সভাপতি জুবের আহমেদ মতিন নতুন সকালকে জানান, ‘আমাদের এই আয়োজনে নিউজার্সির প্যাটারসনে বসবাসরত বাঙালীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। তারা অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন সেই দিনটির জন্য, যেদিন বাংলার সূর্য্য সন্তানেরা ভাষার জন্য বুকের রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন অকাতরে।আমরা সেই বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং তাদেরকে স্মরণ করতে ব্যাপক আয়োজন করেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের এই আয়োজনে প্রবাসী শিশুদের মধ্যে যে আগ্রহ ও উদ্দীপনা লক্ষ্য করেছি তাতে আমি সত্যিই আবেগ আপ্লুত। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি সফল করার লক্ষ্যে তারা নিয়ম করে সপ্তাহে অন্তত তিনদিন প্রাকটিস করছে। স্থানীয় পর্যায়ে যারা শিল্পী, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে জড়িত তারাও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে প্রতিনিয়ত রিহার্সেলে অংশ নিচ্ছেন। আমি আশাবাদী আগামী ২০শে ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় সফল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পর রাত ১২টা ১মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র স্থায়ী শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদনের মাধ্যমে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করব আমরা।’যুক্তরাষ্ট্রের একমাত্র সয়ী শহীদ মিনার প্রসঙ্গে মতিন আরো বলেন,‘আমরা যখন এই শহীদ মিনারের পাদদেশে দাঁড়ায়aaaa

তখন আমাদের বুকটা গর্বে ভরে ওঠে। কারণ, যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অর্থায়ন এবং সার্পোটে শহীদ মিনারটি গড়ে তুলতে আমরা প্রবাসীরা অনেক কষ্ট করেছি। অনেক শ্রম ও সময় দিয়েছি। সেটি অনেক বড় ইতিহাস। এজন্য নিউজার্সি তথা প্যাটারসনে বসবাসরত প্রবাসী বাঙালীরা অনেক সহযোগিতা করেছেন। তাদের নাম বলে শেষ করা যাবে না। তবে এক্ষেত্রে ওয়ার্ল্ড গ্ল্যামের নাম না উল্লেখ করলেই নয়। কারণ এই সংগঠনের সদস্যদের আন্তরিক প্রচেষ্টার কারণেই আমরা এখানে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনারটি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি।’মতিন আরো জানান, ২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে এনজে বাংলা টিভি এবং আরটিভি। এর ব্রডকাস্ট পার্টনার হিসাবে রয়েছে রেডিয়েন্টআইপি টিভি এবং প্রিন্ট মিডিয়া পার্টনার সাপ্তাহিক নতুন সকাল।

IMG_5534

Comments

comments

X