বুধবার, ১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৫ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৪:৩৮
শিরোনাম
Tuesday, March 28, 2017 5:58 am
A- A A+ Print

উদার গণতন্ত্র চর্চার পরামর্শ ইউরোপিয়ান এমপির

বিশ্বব্যাপী মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা উগ্রবাদ মোকাবেলায় উদার ও উন্মুক্ত গণতন্ত্র চর্চার ওপর গুরুত্ব দেওয়া উচিত বলে মনে করছেন বাংলাদেশে সফররত ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের সদস্য আর্নে লিটজ।বাংলাদেশের পোশাক কারখানায় কর্মপরিবেশ ও শ্রমিকদের সার্বিক অবস্থা পরিদর্শনে এসে সোমবার ঢাকার একটি হোটেলে বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে ইইউ পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দল।পরে বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন আর্নে লিটজ।

বাংলাদেশের পোশাক কারখানা পরিস্থিতি জানতে কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর নেতাদের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।এসময় সাম্প্রতিক জঙ্গিবাদী তৎপরতা নিয়ে এক সাংবাদিকের করা প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “সমস্ত ইউরোপীয় ইউনিয়ন জুড়ে সন্ত্রাসবাদের এই হুমকি রয়েছে। এটা এখন একটি বৈশ্বিক সমস্যা।

“কিন্তু আমার বক্তব্য হচ্ছে খোলামেলা ও উদার গণতন্ত্রের চর্চা থাকাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মুক্ত গণমাধ্যম, মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও শিক্ষা ব্যবস্থার স্বাধীনতা এর অন্তর্ভুক্ত থাকবে, সেটাই আমি বোঝাতে চাচ্ছি।”
জার্মানের রাজনীতিক আর্নে লিটজ ইইউ পার্লামেন্টে প্রগ্রেসিভ অ্যায়েন্স অব সোসিয়ালিস্ট অ্যান্ড ডেমোক্রেট এর প্রতিনিধি হিসাবে রয়েছেন। বিজিএমইএর সঙ্গে বৈঠকে আসা ইইউর চার সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন তিনি।

দলের অন্য সদস্যরা হলেন, লিন্ডা ম্যাকাভেন, নোবার্ট নেজার ও এগনেস জোগেরিয়াস।আগামী বুধবার বাংলাদেশ সফর বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তুলে ধরা হবে বলে ইইউ প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

তৈরি পোশাকসহ সব ধরনের পণ্য রপ্তানিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৮টি দেশে ডিউটি ফ্রি বাজার সুবিধা ভোগ করছে বাংলাদেশ। তবে ২০১৩ সালে রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর শ্রমিক নিরাপত্তা ও কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকের অধিকারে বিষয়টি আলোচনায় আনে ইইউ ও পশ্চিমা দেশগুলো।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “শক্ত ও কার্যকর ট্রেড ইউনিয়নের ওপর ইইউর বিজনেস মডেল নির্ভর করে। শ্রমিকের সংগঠন প্রতিষ্ঠা ও নিজেদের অধিকার নিয়ে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার সুযোগ তাদের দিতে হবে।”

Comments

Comments!

 Natunsokal.com

উদার গণতন্ত্র চর্চার পরামর্শ ইউরোপিয়ান এমপির

Tuesday, March 28, 2017 5:58 am

বিশ্বব্যাপী মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা উগ্রবাদ মোকাবেলায় উদার ও উন্মুক্ত গণতন্ত্র চর্চার ওপর গুরুত্ব দেওয়া উচিত বলে মনে করছেন বাংলাদেশে সফররত ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের সদস্য আর্নে লিটজ।বাংলাদেশের পোশাক কারখানায় কর্মপরিবেশ ও শ্রমিকদের সার্বিক অবস্থা পরিদর্শনে এসে সোমবার ঢাকার একটি হোটেলে বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে ইইউ পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দল।পরে বিজিএমইএ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন আর্নে লিটজ।

বাংলাদেশের পোশাক কারখানা পরিস্থিতি জানতে কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর নেতাদের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে বলেও জানান তিনি।এসময় সাম্প্রতিক জঙ্গিবাদী তৎপরতা নিয়ে এক সাংবাদিকের করা প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “সমস্ত ইউরোপীয় ইউনিয়ন জুড়ে সন্ত্রাসবাদের এই হুমকি রয়েছে। এটা এখন একটি বৈশ্বিক সমস্যা।

“কিন্তু আমার বক্তব্য হচ্ছে খোলামেলা ও উদার গণতন্ত্রের চর্চা থাকাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মুক্ত গণমাধ্যম, মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও শিক্ষা ব্যবস্থার স্বাধীনতা এর অন্তর্ভুক্ত থাকবে, সেটাই আমি বোঝাতে চাচ্ছি।”
জার্মানের রাজনীতিক আর্নে লিটজ ইইউ পার্লামেন্টে প্রগ্রেসিভ অ্যায়েন্স অব সোসিয়ালিস্ট অ্যান্ড ডেমোক্রেট এর প্রতিনিধি হিসাবে রয়েছেন। বিজিএমইএর সঙ্গে বৈঠকে আসা ইইউর চার সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন তিনি।

দলের অন্য সদস্যরা হলেন, লিন্ডা ম্যাকাভেন, নোবার্ট নেজার ও এগনেস জোগেরিয়াস।আগামী বুধবার বাংলাদেশ সফর বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তুলে ধরা হবে বলে ইইউ প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

তৈরি পোশাকসহ সব ধরনের পণ্য রপ্তানিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৮টি দেশে ডিউটি ফ্রি বাজার সুবিধা ভোগ করছে বাংলাদেশ। তবে ২০১৩ সালে রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর শ্রমিক নিরাপত্তা ও কর্মক্ষেত্রে শ্রমিকের অধিকারে বিষয়টি আলোচনায় আনে ইইউ ও পশ্চিমা দেশগুলো।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “শক্ত ও কার্যকর ট্রেড ইউনিয়নের ওপর ইইউর বিজনেস মডেল নির্ভর করে। শ্রমিকের সংগঠন প্রতিষ্ঠা ও নিজেদের অধিকার নিয়ে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার সুযোগ তাদের দিতে হবে।”

Comments

comments

X